মেনু নির্বাচন করুন

উদ্যোক্তা সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ১১ই নভেম্বর, ২০১৪ - জাতীয় প্যারেড স্কোয়ার

দেশের ১১ হাজার ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তাদের নিয়ে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে শুরু হয়েছে 'ডিজিটাল সেন্টার উদ্যোক্তা সম্মেলন ২০১৪'। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) পুরো আয়োজনের আয়োজক হিসেবে কাজ করেছে। উদ্যোক্তাদের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, দেশের ১৬ কোটি মানুষকে তথ্যপ্রযুক্তি সেবার আওতায় আনা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, 'আমাদের অঙ্গীকার ছিল মানুষের দোরগোড়ায় তথ্যপ্রযুক্তি সেবা পৌঁছে দেওয়া। আমরা আমাদের প্রতিশ্রুতি রাখতে পেরেছি।' তিনি জানান, দেশের ৪ হাজার ৫৪৫টি ইউনিয়ন তথ্যকেন্দ্র (ইউআইসি), ৩২১টি পৌরসভা তথ্যকেন্দ্র এবং ১১টি সিটি করপোরেশনের ৪০৭টিসহ মোট তথ্যকেন্দ্রের সংখ্যা বর্তমানে ৫ হাজার ২৭৩টি। এছাড়া দেশের আট হাজার ডাকঘরকে আধুনিক করে তথ্যকেন্দ্রে রূপ দেয়ার চেষ্টা চলছে। ব্যক্তিগত উদ্যোগেও দেশে ডিজিটাল সেন্টার গড়ে তোলা হচ্ছে। এছাড়া দেশের ১৩ হাজার ৫০০ কমিউনিটি ক্লিনিকে তথ্যপ্রযুক্তি সেবা দেওয়া হচ্ছে এবং ২৩ হাজার স্কুলে মালিটমিডিয়ায় ক্লাসরুম তৈরি করা হচ্ছে। ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরির জন্য এরই মধ্যে ২৯ হাজার শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান। এর আগে সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেন, 'ডিজিটাল সেন্টার দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের অর্থনীতি এবং জীবনযাত্রা বদলে দিয়েছে। তিনি এসময় সম্মেলনে আগত ডিজিটাল সেন্টার উদ্যোক্তাদের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন দেশের ডিজিটাল সেন্টার উদ্যোক্তাদের 'উদ্যোক্তা' হয়ে ওঠার গল্প শোনান এবং তার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন। এছাড়া সম্মেলনে ‌আরও বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এটুআইয়ের প্রকল্প পরিচালক কবীর বিন আনোয়ারসহ আরও অনেকে। উল্লেখ্য, ডিজিটাল সেন্টার বা তথ্যকেন্দ্রের ৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে দিনব্যাপী এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দেশের ৫ হাজার ২৭৩টি ডিজিটাল সেন্টারে কর্মরত ১১ হাজার ডিজিটাল সেন্টার উদ্যোক্তা এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।


Share with :

Facebook Twitter